মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

এক নজরে চর কাদিরা ইউনিয়নের ইতিহাস

 

এক নজরে চর কাদিরা ইউনিয়নের ইতিহাস

 

১৮৫৪ ইং সনে দেশের বৃহত্তম নদী মেঘনার বুক থেকে জেগে উঠে এই চরাঞ্চল। নতুন এই চরে মেঘনা ও ভুলুয়া নদীর ভাঙ্গনে বাস্তুচ্যুত হয়ে বাকের গন্জ (বরিশাল ) জেলার দৌলতখান থানা ও তৎকালীন শাহবাজপুরের (ভোলা ) এবং নোয়াখালীর জেলার লক্ষ্মীপুর থানাধীন ফরাশগন্জ, কুশাখালী থেকে আসা কিছু পরিবার কৃষিকাজ ও বসতিস্থাপন করে। ১৯০৫ সালে থাক সার্ভে তৎকালিন বাকেরগঞ্জ ( বরিশাল ) জেলাধীন দৌলতখান থানা এবং ১৯১০ সালে ডিস্ট্রিক্ট স্যাটেলম্যান্ট ( ডি.এস ) জরীপে নোয়াখালী জেলার উত্তর হাতিয়া ১৯১৭ সালে রামগতি থানার অধীনে চর কাদিরা মৌজা গেজেটভূক্ত করা হয়। ১৯৫৫ ইং সনে চর কাদিরা ইউনিয়ন বোর্ড,১৯৭২ ইং সনে চর কাদিরা ইউনিয়ন কাউন্সিল, ১৯৮৩ ইং সনে ৫নং চর কাদিরা ইউনিয়ন পরিষদ গঠন করা হয়। ২০০৬ ইং সনে ৫নং চর কাদিরা ইউনিয়নকে বিভাজন করে ইউনিয়নের দঃ পূর্ব  অংশকে ৮নং চর কাদিরা ইউনিয়ন এবং দক্ষিণ অংশকে ৯নং তোরাবগঞ্জ ইউনিয়ন হিসেবে দুটি ইউনিয়ন গঠন করা হয়।

 

কমলনগর উপজেলা গঠনের পটভূমিঃ

প্রাক্তন সংসদ সদস্য ভাষা সৈনিক মরহুম তোয়াহা ও তৎকালনি রামগতি হাতিয়ার সংসদ সদস্য মরহুম আবুল খায়ের রামগতিকে দুইটি খানা করার প্রস্তাবের প্রেক্ষিতে মরহুম কফিল উদ্দিন আহমেদ (ফাইনান্স সেক্রেটারী) একটি প্রতিবেদন দেন। পরবর্তীতে নিকার ৯৩ তম বৈঠকের সিদ্ধান্তের আলোকে গেজেট বিজ্ঞপ্তি নং- উপ-২/সি- ১৫/২০০৫/২৯৫, তারিখ ০৬.০৬.২০০৬ খ্রি: মোতাবেক লক্ষ্মীপুর জেলার রামগতি উপজেলার ০৫টি ইউনিয়নকে নিয়ে কমলনগর নামে একটি নতুন প্রশাসনিক উপজেলা গঠিত হয়। পরবর্তীতে নভেম্বর ২৯, ২০০৭ বাংলাদেশ গেজেট মোতাবেক ০৪টি ইউনিয়ন দ্বিখন্ডিত হয়ে ০৮টি করা হয় এবং মোট ০৯টি ইউনিয়নে পরিনত হয় (অফিস সুত্র)


Share with :

Facebook Twitter